রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

 

স্ত্রী’র প্রতারণায় সর্বস্বহারা ওমান প্রবাসী স্বামী



ডেইলি ফেঞ্চুগঞ্জ ডটকম : স্ত্রী প্রতারণা করে ফেঞ্চুগঞ্জের ওমান প্রবাসী স্বামীর ছয় বছরের ইনকাম প্রায় পনেরো লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছে। পাশাপাশি স্বামীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন হুমকি দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার ঘিলাছড়া ইউনিয়নের যুধিষ্ঠিপুর গ্রামে।

জানা গেছে- ওই গ্রামের বাসিন্দা ওমান প্রবাসী তারেক আহমদ তপুর স্ত্রী সিলেট হাউজ স্টিক এলাকার জাহাঙ্গীর আলম এ-র মেয়ে সৌদিআরবের আবহা প্রবাসী সুরমা প্রতারণা করে প্রায় পনেরো লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছে।.

তারেকের বাবা-মাকে গত কয়েক দিন ধরে বিভিন্ন ভাবে হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছে সুরমা ও তার স্বজনরা। স্ত্রীর এমন ঘটনা দেখে দিশেহারা স্বামী তারেক আহমদ তপু। ভুক্তভোগী স্বামী তারেক আহমদ তপু দেশে না থাকায় নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন তার বাবা-মা ও স্বজনরা।

এদিকে স্ত্রী সুরমা গত কয়েকদিন থেকে তারেক আহমদ তপুকে স্বামী হিসেবে অস্বীকার করে আসছেন বলে অভিযোগ তারেক আহমদ তপুর।

তারেক আহমদ তপু বলেন- ছয় বছর আগে স্ত্রী সুরমা সৌদিআরব থাকতেই তার সাথে আমার প্রেমের সম্পর্ক হয়, তার পর থেকে সুরমা বিভিন্ন সময়ে তাদের পরিবারের অর্থনৈতিক সংকট দেখিয়ে মোটা অংকের টাকা চাইতেন তারেক আহমদ তপুর কাছে, এরকম গত ছয় বছর থেকে সুরমা তারেকের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা আনতেন এবং তার সাথে বিয়ে হবে বলে আস্বস্ত করতেন, অবশেষে গত ৫/০১/২০২০ ইংরেজি তারিখে স্ত্রী সুরমা সৌদিআরবের আবহা এলাকায় গৃহীনির কাজে থাকার কারণে তার সাথে আমাদের দুই পরিবারের মতামতে ফোনের ভিডিও কলের মাধ্যমে দুই লক্ষ টাকা দেনমোহরে আমাদের বিয়ে হয়।

তারেক আহমদ তপু আরো বলেন- বিয়ের পরে প্রায় এক বছর ভালোই চলছিলো সুরমার সাথে আমার কথাবার্তা কিন্তু বিগত কয়েকমাস আগে সুরমা আমার কাছে আবারও মোটা অংকের টাকা দাবী করে তার বাপ-ভাইকে দেবার জন্য, এতে আমি রাজি না হলে সুরমা আমার সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়, এবং আমাকে তার স্বামী হিসেবে অস্বীকার করে।

এতে আমি সুরমার বাপ-ভাইয়ের কাছে অভিযোগ দিলে তারাও আমাকে খারাপ ভাষায় গালাগালি এবং আমাকে জানে মেরে ফেলার হুমকি প্রদান করে, এখন তাদের হুমকিতে আমি নিরুপায়।

তারেক আহমদ তপু বর্তমানে টাকা-পয়সা এবং স্ত্রী সুরমাকে হারিয়ে মানুষিক যন্ত্রণায় ভুগছেন। তিনি বলেন- বর্তমানে আমি ওমান থেকে দেশে আসতে পারছিনা তাদের হুমকিতে, তারা আমাকে ফোনকলের মাধ্যমে হুমকি দিচ্ছে আমি দেশে আসলে খুন করবে। তিনি বলেন- আমি তাদের বিরুদ্ধে মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছি, আমি এ-র সঠিক বিচার চাই, আমার মতো যেনো আর কোন প্রবাসী এরকম প্রতারক স্ত্রীর প্রতারণার স্বীকার যেনো না হন।

এ ব্যাপারে সুরমার মোবাইল ফোনে একাধিকবার চেষ্টা করেও তার কোনো বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানান- এ ব্যাপারে পুলিশ কিছুই জানে না। তবে কেউ কোনো অভিযোগ নিয়ে এলে তদন্তসাপেক্ষ আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন