সোমবার, ২ অগাস্ট ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১৮ শ্রাবণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

 

‘সাংবাদিক রোজিনা মুক্ত না হলে মুক্ত সাংবাদিকতার অস্তিত্ব হুমকির মধ্যে পড়বে’



ডেইলি ফেঞ্চুগঞ্জ ডটকম : প্রথম আলোর সাংবাদিক কারাবন্দী রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে করা মামলাকে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক উল্লেখ করে সাংবাদিক নেতারা বলেছেন- রোজিনা মুক্ত না হলে মুক্ত সাংবাদিকতার অস্তিত্ব হুমকির মধ্যে পড়বে। ব্যক্তিগত তথ্য, ফোনালাপ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে বিভ্রান্তি তৈরি করে সাংবাদিকদের ঐক্যে যাতে বিভেদ সৃষ্টি করা না হয়, সে বিষয়ে সতর্ক থাকতেও বলেছেন তাঁরা।

সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে নির্যাতন ও গ্রেপ্তারের ঘটনায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশের তৃতীয় দিন আজ শুক্রবার এসব কথা বলেন সাংবাদিক নেতারা।

বেলা সাড়ে ১১টায় আয়োজিত ওই সমাবেশে তাঁরা আরও বলেন- স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের যেসব দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে রোজিনা কলম ধরেছিলেন, তাঁদের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে, তা সবাই জানতে চায়। দুর্নীতিবাজদের গুন্ডামিতে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা বন্ধ হবে তা মানা যায় না। রোজিনার জামিন এবং মামলা প্রত্যাহারে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন তাঁরা। রোজিনার বিরুদ্ধে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের করা তদন্ত কমিটি প্রত্যাখ্যান করেন তাঁরা।

প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য দেন- ডিআরইউর সাধারণ সম্পাদক মসিউর রহমান খান, সহসভাপতি ওসমান গণি বাবুল, বিএফইউজে কোষাধ্যক্ষ দীপ আজাদ, বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরামের (বিএসআরএফ) সাবেক সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান, ফটো সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজল, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, ডিআরইউর সাংগঠনিক সম্পাদক মাইনুল হাসান সোহেল, ডিআরইউ বহুমুখী সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক, ডিআরইউর সদস্য হেলেমুল আলম বিপ্লব, জামিউল আহসান শিপু, শাহনাজ শারমিন, রিয়াদুল করিম, আহমেদ ফয়েজ, আশীষ কুমার দে, শিপন হাবিব, রাব্বি সিদ্দিকী, মানিকলাল ঘোষ, সাইফুল ইসলাম জুয়েল, এস এম ফয়েজ, রফিক রাফি, মতলু মল্লিক- প্রমূখ।

উল্লেখ্য, ১৭ মে সচিবালয়ে পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় রোজিনা ইসলামকে আটকে রেখে হেনস্তা করেন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা। রাতে তাঁকে শাহবাগ থানা-পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয় এবং অফিশিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টের মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়। পরদিন আদালত রিমান্ড আবেদন নামঞ্জুর করে তাঁকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। রোজিনা এখন কাশিমপুর কেন্দ্রীয় মহিলা কারাগারে বন্দী রয়েছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন