বুধবার, ২৩ জুন ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আষাঢ় ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

 

বিদায় ২০১৬, স্বাগত ২০১৭



ডেইলি ফেঞ্চুগঞ্জ ডটকম ডেস্কঃ আজ রোববার পূব আকাশে যে সূর্য উঠবে সেটি হয়তো অন্য দিনের মতোই লাল থাকবে। তবে সেটি নতুন দিনের সূর্য। নতুন বছরের সূর্য। আর শনিবার সন্ধ্যায় যে সূর্যটি অস্ত গেছে সেটিও একই লাল। তবে সেটি একটি বছরের শেষ সূর্যাস্ত। হ্যা, এভাবে একই সূর্য অস্ত গিয়ে বিদায় নেয় একটি বছর। আবার ওঠে এবং জানান দেয় নতুন বছরের। বিদায় ২০১৬। স্বাগত-২০১৭।

নতুন বছরের প্রথম সূর্য উঠবে আজ রোববার। সে হিসেবে ইংরেজি বছরের নতুন দিন আজ। মহাকালের চিরন্তন গতি প্রবাহে বিগত হয়ে গেলো আরো একটি বছর। শুরু হলো ইংরেজি নতুন বছর-২০১৭।

নতুনের প্রতি মানুষের সব সময় থাকে বিশেষ আগ্রহ। থাকে উদ্দীপনাও। আর নতুনের মধ্যেই তো নিহিত থাকে অমিত সম্ভাবনা। আর সেই সম্ভাবনাকে বাস্তবে রূপ দিতে সুযোগ করে দেবে নতুন বছর।

শনিবার ছিল ২০১৬ সালের শেষ দিন। আর আজবিশ্ববাসী পা রাখল নতুন একটি বছরে।

বাংলাদেশ স্বাধীনতা অর্জনের ৪৫তম বছর পার করল ২০১৬ সালে।

নতুনকে স্বাগত আর পুরনোকে বিদায়ের এই ক্ষণে ডেইলি ফেঞ্চুগঞ্জ ডটকম এর অগণিত পাঠক, ফেসবুক বন্ধু ও শুভানুধ্যায়ীর প্রতি রইল শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

বছরজুড়ে জঙ্গিবাদের নানা নৃশংসতা দেখতে হয়েছে ২০১৬ সালে। ঘটেছে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির মতো দূর্ঘটনা।তবে বেশ কিছু আলোচিত হত্যাকাণ্ড কষ্ট দিয়েছে সাধারণ মানুষকে।

২০১৬ সালেই তো মুস্তাফিজ আইসিসি সেরা উদীয়মান তারকা হয়েছেন। এই টাইগারকে নিয়ে আরো বেশি স্বপ্ন ২০১৭ সালে দেখতে পারেন ক্রিটেকপ্রেমীরা।

তবে আর যাই হোক, নতুন বছরের সুন্দর সূর্যের সঙ্গে একটি সুন্দর দিন উদযাপন করবে স্কুল পড়ুয়া শিশু কিশোররা। এদিন বই উৎসব করে তুলে দেয়া হবে নতুন বই। নতুন বইয়ের গন্ধে শুরু হবে তাদের নতুন দিন। এরই মধ্যে শনিবার প্রধানমন্ত্রী এর উদ্বোধন করেছেন।

তবে সবচেয়ে উদ্বেগের বিষয়, বাংলাদেশে রাজনৈতিক সংস্কৃতিতে ইতিবাচক পরিবর্তনের লক্ষণ নেই। বিরোধ-সংঘাতের সেই পুরোনো আবর্তেই রাজনীতি ঘুরপাকে রয়েছে। নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে রাষ্ট্রপতি সংলাপ করেছেন। সবার চোখ এখন বঙ্গভবনে। নতুন বছরে সেখান থেকে কী পাওয়া যাবে নির্বাচন কমিশন গঠন বিষয়ে।

২০১৬তে বিনিয়োগ নিয়ে শঙ্কা দূর হয়নি। পর্যাপ্ত সম্পদ থাকার পরও বিনিয়োগ হয়নি।

এসব বাস্তবতা সঙ্গে নিয়েই আমরা আরও এক নতুন বছরে। আমরা সব সময় আশাবাদী। আমরা স্বপ্ন দেখি সামনের দিনগুলো সুন্দর হবে। নতুন বছরে আমাদের প্রত্যাশা, রাজনৈতিক ক্ষেত্রে জনকল্যাণের বিষয়টি গুরুত্ব পাবে, বৈরিতার পরিবর্তে সহযোগিতার সম্পর্ক সৃষ্টি হবে।

নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়ে এরই মধ্যে সামাজিক মাধ্যমে শুভ কামনা জানানো হচ্ছে। নববর্ষের শুভেচ্ছবার্তাসহ কার্ড ও বৈচিত্রময় রঙিন ইলাস্ট্রেশনে সাজানো হচ্ছে নিজেদের পেজ। মুঠোফোনে বিভিন্ন ক্ষুদে বার্তায় শুভেচ্ছা বিনিময় শুরু হয়েছে। নতুন বছর উপলক্ষে শুভেচ্ছা বার্তা পাঠাচ্ছে বিভিন্ন করপোরেট, সরকারি ও বেসরকারি সংস্থা ও সংগঠন।

নববর্ষের প্রথমদিন বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে দিনটি উদযাপিত হবে। দিনটিতে ব্যক্তি, পরিবার, সমাজ, দেশ তথা সমগ্র বিশ্বের সুখ ও উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ কামনা করা হবে।

এই দিনটিতে বিদায়ী বছরের সাফল্য ও ব্যর্থতা ফিরে দেখা হয় এবং নতুন বছরে কিভাবে লক্ষ্য অর্জন করা যায়, সেজন্য পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়। বছরের অসমাপ্ত কাজগুলো সম্পন্ন করার জন্যও কর্মপরিকল্পনা নেয়া হয়।

আমরা এগিযে যাবো। এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ।

সংবাদটি শেয়ার করুন