রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

 

নেতাকর্মীরা উজ্জীবিত, ফারজানা সামাদ চৌধুরীর সাথে দলীয় নেতাকর্মীদের ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়



ডেইলি ফেঞ্চুগঞ্জ ডটকম : সিলেট ৩ আসনের সংসদ সদস্য, ধর্ম ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি, শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদ কেন্দ্রীয় মহাসচিব ও তিন তিনবারের নির্বাচিত এমপি গত ১১ মার্চ করোনা আক্রান্ত হয়ে ইন্তেকালের পর থেকে সিলেট ৩ আসন আওয়ামী লীগ ও সাধারণ জনগণ অভিভাবকহীন হয়ে প্রায় ঝিমিয়ে পড়ে ছিলেন।

একজন জনপ্রিয় নেতা ও উন্নয়নের কান্ডারীকে হারিয়ে শোকের মধ্যে আশার আলো জাগিয়েছেন ৩ আসনের প্রয়াত সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরীর সহধর্মিনী ফারজানা মাহমুদ উস সামাদ গার্লস হাই স্কুল ও কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ফারজানা সামাদ চৌধুরী।

ঝিমিয়ে পড়া নেতাকর্মীদের উজ্জীবিত করতে ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ঈদের আগের দিন থেকে নিজ বাসভবনে অবস্থান করে নেতাকর্মী ও এলাকাবাসী এবং সমর্থকদের সৌজন্য সাক্ষাৎ করছেন।

এদিকে ঈদে নেতা-কর্মীদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ ও সিলেট ৩ আসনের সর্বস্তরের জনগণ ও দলীয় নেতাকর্মীর দাবির প্রেক্ষিতে সিলেট ৩ আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়ন চাইবেন জেনে নেতাকর্মীরা সমর্থক বৃন্দ ও সাধারণ জনগণ মরহুম এম পি সামাদ চৌধুরীর কবর জিয়ারত ও ফারজানা সামাদ চৌধুরী সাথে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করছেন।

ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার নুরপুর এমপি সামাদ চৌধুরীর বাসায় আসা এ সময় তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন- স্বামী হারানাের পর থেকে আপনারাই আমার অভিভাবক, আপনাদের যেকোনো সিদ্ধান্ত আমি মাথা পেতে নেব, আপনাদের দাবির প্রেক্ষিতে আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি সিলেট ৩ আসনের জনগণের জন্য কাজ করতে।

তিনি আরো বলেন- আমার স্বামী জীবন দশায় মানুষের কল্যাণে কাজ করে গেছেন, আমিও তাঁর দেখানাে পথে তাদের দাবির প্রেক্ষিতে মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাব, আপনারা সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন।

গতকাল শুক্রবার ঈদের দিন ও আজ বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও মেম্বার বৃন্দ দক্ষিণ সুরমা, ফেঞ্চুগঞ্জ ও বালাগঞ্জের আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করতে আসেন। আবারো নেতাকর্মীদের ভিড় লেগেছে এমপি সামাদ চৌধুরী বাড়িতে।

সংবাদটি শেয়ার করুন