বুধবার, ২৩ জুন ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আষাঢ় ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

 

ঘিলাছড়ায় ৭০০ বছর বয়সী মসজিদ!



টিপু সুলতানঃ আনুমানিক ৭০০ শত বছর আগে নির্মিত হয়েছিল একটি মসজিদ।এই মসজিদের সঠিক ইতিহাস কেউ জানেন। জনশ্রুতিতে, জানা যায় আনুমানিক ১৪০০ খ্রীষ্টাব্দে উকিল জামাল মামন নামের এক শাসকের আমলে নির্মিত হয়েছিল এই মসজিদ।

মসজিদ টি ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার ঘিলাছড়া ইউনিয়নের উত্তর আশিঘরে অবস্থিত।

স্থাপত্য কিংবা স্থপতির সঠিক নিদর্শন না পেলেও এলাকার প্রবীণ মুরুব্বীদের বরাত দিয়ে জানা যায় যে, প্রায় দেড়শ পূর্বে স্থানীয় লোকজন কংক্রিটের দেয়ালের এই মসজিদে বাশ এবং ছনের ছাদ দিয়ে নামাজ আদায় করতেন।কিন্তু একসময় ঝোপ ঝাড়ে মসজিদ ঘরের সয়লাব হয়ে যায়, লোকজন পরিত্যাক্ত অবস্থায় মসজিদ টির ব্যাবহার বাদ দিয়ে দেন। মসজিদের দেওয়াল নির্মানে ব্যাবহৃত হয়েছে ইটের চূর্ণ, বালি।

৮ টি পিলারের উপর দাড়ানো মসজিদ ঘরটিতে রড ব্যাবহার নিশ্চিত হওয়া যায় নি।মসজিদে প্রবেশের জন্য রয়েছে ৫ টি বড় দরজা। মসজিদের অভ্যন্তরে ছাদে রয়েছে ২টি ভিম।যা দেখে অনুমান করা যায় একসময়ে এই ছাদে গম্বুজওয়ালা কিছু ছিল। ইতোপূর্বে বিভিন্ন সংস্থা মসজিদ স্থাপনাটি পরিদর্শন করেছে, মসজিদের নির্মাণশৈলী অনেকটা দরগাহ মসজিদের আদলে নির্মিত হয়েছে বলে ধারনা করা যাচ্ছে।

আলোচিত এই মসজিদ কে ঘিরে এলাকায় অনেক চাঞ্চল্যকর তথ্য বিরাজমান আছে, যা লোকমুখে চর্চা হচ্ছে। মসজিদ টির তথ্যাবধায়ক হিসেবে আছেন দেশ বরেণ্য ক্বারী আইনুল হুদা সাহেব।জনশ্রুতি আছে যে, ক্বারী আইনুল হুদার উপস্থিতিতে উক্ত মসজিদের ভেতরে ঝোপঝাড় পরিচ্ছন্ন করা হয়।এর পর থেকেই আইনুল হুদা সাহেব মসজিদ টির রক্ষণাবেক্ষণ করছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন