মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ আষাঢ় ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ইউপি চেয়ারম্যানের দায়ীত্বরত কর্মকর্তা সাঈদুর রহমান শামীমের অসদাচরনে অতিষ্ঠ ইউনিয়নবাসী



বিশেষ প্রতিনিধি : ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার ৪নং উত্তর কুশিয়ারা ইউনিয়নের দায়ীত্বরত চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ মোঃ সাঈদুর রহমান শামীমের মানুষিক অত্যাচার, মানুষের সাথে খারাপ ব্যবহার ও ঘুষ ব্যবসায় অতিষ্ঠ ৪নং উত্তর কুশিয়ারা ইউনিয়ন পরিষদের সাধারণ মানুষ।

যেকোন ধরনের অরিজিন্যাল কাগজপত্রাদি নিয়ে গেলে ঘুষ না দিলে সিগনেচার করতে রাজি নন। অতপর ঘুষ দিলে যেকোন ডুপ্লিকেট কাগজে সিগনেচার দিতে কোন অসুবিধা হয়না।

ঘুষ নিয়ে তার বিরুদ্ধে কেহ যদি সরাসরি কোন কথাবার্তা বলে তাকে পরবর্তীতে অনেক ভোগান্তিতে পরতে হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার কয়েকজন লোক বলেন বিষয়টি সত্য কিন্তু আমরা কোন প্রতিবাদ করতে যাই নাই কারণ প্রতিবাদ করলে আমরা আরোও অনেক ভোগান্তিতে পরতে হত।

লোকজন আরোও বলছেন- একজন সরকারী চাকুরীজিবী মানুষের মাসিক আয় অনুসারে একটি পরিবার চলাফেরা স্বাভাবিক কিন্তু বর্তমান সময়ে যতটুকু উন্নীত হয়েছেন তা ঘুষের টাকা ছাড়া কিছুই নয় এবং তারা মনে করছেন বিভিন্ন সরকারী ত্রান বিতরন ও অনুদানের উপরও তার হাত রয়েছে।

আরেকজন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা বলেছেন ঘুষ খাওয়া তার পেশা হয়ে পড়েছে কিন্তু তার বিরুদ্ধে বলার মত কেহ নাই কারণ মানুষকে হয়রানিতে ফেলে দিবে। সৈয়দ সুমন নামে এক সাংবাদিক গত (০৬ মে ২০১৮ইং, রোজ রবিবার) এবিষয়ে কোন খোজ খবর নিতে গেলে তার নিজের একটি কাজ নিয়ে সামনে পরেন কিন্তু তিনি তাকেও ছাড়েননি। বরং টাকা না দেওয়ায় বারবার ইউনিয়ন থেকে উপজেলা উপজেলা থেকে ইউনিয়নে ঘুরিয়েছেন।

প্রশাসনের কাছে এলাকার গন-মানুষের দাবী যেন বিষয়টি নজরদারীতে রাখা হয়। এবং আর কোন মানুষকে এমন অসুবিধায় পড়তে না হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন