বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১৫ মাঘ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

দক্ষিণ সুরমায় আঞ্জুমানে আল ইসলাহ ও তালামীযে কোন্দল : সভাপতি-সম্পাদকের পদত্যাগ



দক্ষিণ সুরমা প্রতিনিধি :: দক্ষিণ সুরমায় আঞ্জুমানে আল ইসলাহ ও তালামীযের দীর্ঘদিনের পূঞ্জিভুত কোন্দল এবার মাথা চাড়া দিয়ে উঠেছে। উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান ও দক্ষিণ সুরমা থানা তালামীযের আভ্যন্তরিণ কোন্দল এখন প্রকাশ্য রূপ নিয়েছে।

সম্প্রতি দক্ষিণ সুরমা থানা তালামীযের সভাপতি ফখরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম জেলা সভাপতি শেখ আলী হায়দারের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন বলে স্বীকার করেছেন সভাপতি ও সেক্রেটারী। পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার মাধ্যমে এই কোন্দল প্রকাশ্যে রুপ নিয়েছে বলে দলের নির্ভরযোগ্য সূত্র নিশ্চিত করে।

দলীয় সুত্রে জানা যায়, গত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আঞ্জুমানে আল ইসলাহ ও তালামীযের সরাসরি সমর্থন নিয়ে ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন মাহবুবুর রহমান। উপজেলা নির্বাচনের পর থেকে দলীয় ও নানা বিষয় নিয়ে থানা তালামিয ও ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমমানের মধ্যে মত পার্থক্য দেখা দেয়।

সুত্র জানায়, নির্বাচনে প্রার্থী বাছাইয়ের শুরু থেকেই এই অসন্তোষের সুত্রপাত। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় নেতা কর্মীরা জানান, নির্বাচনে মাহবুবুর রহমানকে প্রাথী হিসেবে মেনে নিতে পারছিলেন না স্থানীয় তালামীযের একটি অংশ। কিন্তু কেন্দ্রীয় নির্দেশনা মেনে তারা নির্বাচনে দলের প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেন।

দক্ষিণ সুরমা থানা তালামীযের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি জেলা সভাপতির কাছে পদত্যাগপত্র দেয়ার কথা স্বীকার করেছেন । তবে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানের সাথে দ্বন্দ্ব নয় পারিবারিক কারণে তিনি পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন।

দক্ষিণ সুরমা থানা তালামীযের সভাপতি ফখরুল ইসলামও পদত্যাগপত্র দেয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, এটা আমাদের সাংগঠনিক বিষয়। আমরা জেলা সভাপতির নিকট পদত্যাগপত্র দিয়েছি, এখন তারা সিদ্ধান্ত নিবেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন