মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

রাজনীতি দুই প্রকার : আব্দুল শহিদ কাজল



রাজনীতি দুই প্রকার, যেমন কেউ করে রাজ্যের জন্য- আবার কেউ করে রাজার জন্য। রাজা বলতে নিজের স্বার্থ উদ্ধারের জন্য, রাজ্য বলতে জনগণের জন্য।
জনগণের জন্য যদি রাজনীতি হয় তাহলে জনগণের পাশেই থাকতে হবে, জনগণের দুঃখ-দুর্দশা দেখতে হবে, আর যদি রাজার জন্য হয় তাহলে শুধু বড় বড় নেতাদের সাথে ছবি তুলে বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রচার করে নিজের ফায়দা লোটার জন্য।
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রাজনীতি করেছেন গরীব দুখী মেহনতী মানুষের জন্য, উনি সব সময় মেহনতী মানুষের কথা বলতেন এবং তাদেরকে সম্মান দিতেন।
আমরা এমন রাজনীতি করি যদি একজন গরীব মানুষ আমাদের কাছে একটু উপকারের জন্য আসে বরং আমরা তাদেরকে আরো বিপদের মুখে ফেলে দেই, কোথায় তাদেরকে সাহায্য করবো-পরামর্শ দিব সেটা না করে বরং আমরা উল্টাটা করি।
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এই দেশটাকে স্বাধীন করে দিয়ে গেছেন কিছু সুবিধাবাদী লোকের জন্য, তা না হলে ১৯৭৫ সালে ১৫ই আগস্ট উনি সহ পুরো পরিবারকে তারা হত্যা করতে পারত না!
আজ আমরা দেখি কেউ রাজনীতি করে রাস্তার ভিখারি হচ্ছে আবার কেউ রাজনীতি করে অট্টালিকার মালিক হচ্ছে, এভাবে যদি আমরা রাজনীতি করি তাহলে কখনো জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন পূরণ করতে পারব না! আমরা নিজের চিন্তা না করে দেশের চিন্তা করি, দেশকে কিভাবে উন্নত করে নেওয়া যায় সেই কাজটা আমরা করবো।
যার যার অবস্থান থেকে এই করোনা মহামারীর সময় দেখা গেছে কত জন লোক জনগণের পাশে দাঁড়িয়েছে, সবাই নিজের জান বাঁচাতে ব্যাস্তু ছিলো, কিন্তু আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা যেভাবে সরকারি অনুদান দিয়েছেন এবং সব সময় আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করেছেন যে আল্লাহ আমার এই দেশটাকে করোনা মহামারী হইতে আমাদেরকে মুক্ত রাখেন, আল্লাহ উনার প্রার্থনা কবুল করেছেন, তার জন্য বিশ্বের অন্যান্য দেশের চেয়ে বাংলাদেশ ক্ষতিগ্রস্ত খুব কম হয়েছে কারণ আল্লাহ যাকে মায়া করবেন বান্দারা যতই কথা বলুক কোন লাভ হবে না! উনার উপরে আল্লাহ খুশি আছেন বলেই দেশ চালিয়ে যাচ্ছেন কিন্তু এর ভিতর কিছু কিছু লোকজন কুকর্ম করে যাচ্ছে সেটাও আল্লাহ দেখছেন এবং আল্লাহ সেটা বিচার করবেন।
বিচারের মালিক আল্লাহ এবং আল্লাহ যাহার বিচার করবেন সেইটাই শেষ বিচার হবে! তাই আমি সবাইকে অনুরোধ করব আমরা সবাই মিলে দেশকে ভালোবাসি, দেশের মানুষকে ভালোবাসি, দেশের মধ্যে কোন গন্ডগুল সৃষ্টি না করি ইনশাআল্লাহ একদিন আমরা এই দেশটাকে সোনার বাংলায় গড়ে তুলতে পারবো।
আরেকটি কথা না বল্লেই নয়, আমরা যাহারা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সহযোগী দল করি দলিয় অনুমোদন ছাড়া! আপনারা কখনো কোন অপকর্মের সাথে জড়াবেন না, যদি একবার ধরাখান সারা জীবন কাঁদবেন ধন্যবাদ সবাইকে, জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশ দীর্ঘজীবী হোক।
সংবাদটি শেয়ার করুন