রবিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ মাঘ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সারাদেশের ন্যায় ফেঞ্চুগঞ্জে অবিরাম দুই দিনের বর্ষণে জনজীবন বিপর্যস্থ, বেড়েছে জনদুর্ভোগ



এমরান আহমেদ : বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকায় গাড়ি সংকটে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। সৃষ্টি হয়েছে ব্যাপক দুর্ভোগ। সাগরে নিন্মচাপ থাকায় দেশজুড়ে বৃষ্টিপাত অব্যাহত রয়েছে। এদিকে বৃষ্টিপাতের এ প্রবণতায় ফেঞ্চুগঞ্জ বাসি সকাল থেকে ভিজে নাকাল। সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবসে সকাল বেলা কাকভেজা হতে হয়েছে অনেককে। কেউ কেউ আবার ভিজে একাকার হয়েছেন ভারী বৃষ্টিতে।

আবহাওয়ার গতি-প্রকৃতি বিশ্লেষণ করে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, আগামী ছয়দিন ক্রমান্বয়ে রাতের তাপমাত্রা কমবে।

এদিকে উপজেলায় বৃষ্টিপাতের ফলে গাড়ি সংকটে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। সৃষ্টি হয়েছে ব্যাপক দুর্ভোগ। বৃষ্টির অযুহাতে রিকশাচালক, সিএনজি (রুপান্তরিত প্রাকৃতিক গ্যাস) চালিত অটোরিকশা চালকরা ভাড়া বাড়িয়েছে দেড় গুণ। সাগরে নিন্মচাপ থাকায় দেশজুড়ে বৃষ্টিপাত অব্যাহত রয়েছে।

গত শনিবার থেকে আজ রোববার সন্ধা পর্যন্ত ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলায় টানা বৃষ্টি ঝরছে। টানা ২ দিনের বৃষ্টিতে জনজীবনে বিপর্যয় নেমে এসেছে। উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় স্থায়ী জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। বিভিন্ন এলাকার অনেক সড়ক পানিতে থৈ থৈ। অনেক এলাকার রাস্তায় পানি জমে যাওয়ায় মানুষ সীমাহীন কষ্টে পড়েছে। ফলে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে উপজেলার জন জীবন।

উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, বৃষ্টিতে উপজেলার অলিগলিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার অভ্যন্তরীণ এলাকাসহ অন্যান্য এলাকায় শনিবার ও রোববারের টানা বৃষ্টিতে নাকাল হয়ে পড়েছেন এলাকাবাসী। জনদুর্ভোগের মাত্রা পৌঁছেছে চরমে। দিনে গণপরিবহন সংকট, এলাকার অধিকাংশ রাস্তাঘাট খানাখন্দে ভরা। অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনায় ব্যাহত হচ্ছে স্বাভাবিক জনজীবন।

বৃষ্টির কারণে গণপরিবহন সংকটে শিক্ষার্থী, ব্যবসায়ী ও অফিসগামী মানুষ সহ সব শ্রেণীপেশার মানুষকে সমস্যায় পড়তে হয়েছে। শনিবার ভোর বেলা থেকে প্রায় সারা দিনই ছিল বৃষ্টির আনাগোনা। বাজার ও রাস্তাঘাটের অবস্থা ছিল কদাকার। সরেজমিন দেখা গেছে, টানা বৃষ্টির জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে উপজেলার বেশ কিছু এলাকায়।

ফেরিঘাট থেকে ফেঞ্চুগঞ্জ বাজার হয়ে মাইজগাঁও সড়ক দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করছে যানবাহন। ফলে একের পর এক দুর্ঘটনা ঘটেই চলেছে। ফেঞ্চুগঞ্জ বাজার হয়ে মাইজগাঁও সড়কটি যানবাহন চলাচলের সম্পূর্ণ অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। স্থানীয় ব্যবসায়ী তাজ উদ্দিন আহমদ নাহিদ জানান, এই সড়ক দিয়ে যাতায়াতকারী রিকশা, অটোরিকশা ও টমটম প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনায় পতিত হচ্ছে। ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা সদরের সড়কগুলো আর কত ভাঙলে সংস্কার করা হবে বলে জানান তিনি ।

সংবাদটি শেয়ার করুন