বুধবার, ৩ মার্চ ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বালাগঞ্জ-ওসমানীনগরে প্রত্যাশিত ফলনে কৃষকরা মহাখুশি…



এসএম হেলাল : বালাগঞ্জ- ওসমানীনগরে মাঠের পর মাঠ জুড়ে সোনালি ধানের হাসির ঝিলিক। পাকা ফসলের দিকে তাকালে যে কারোরই প্রাণ জুড়িয়ে যায়। প্রত্যাশিত ফলন দেখে কৃষকরা মহাখুশি। কোথাও ধান কাটা হচ্ছে কোথাও মাড়াই চলছে। এরমধ্যে কৃষক-কৃষানিরা সোনালি ফসল ঘরে তুলতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন।

গত কয়েকদিন ধরে দু-উপজেলার বিভিন্ন স্থানে উৎসবমুখর পরিবেশে ধান কাটার দৃশ্য লক্ষা করা গেছে। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত চলছে ধান কাটা। আর সন্ধ্যায় থেকে চলছে মাড়াই। সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন দুর্যোগের ধকল থাকলেও এবার কৃষকরা জানিয়েছেন ভাল ফলন হয়েছে। সবমিলিয়ে শীতের হালকা আমেজে উৎসবমুখর পরিবেশে বিরাজ করছে সর্বত্র।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে ও সরেজমিন পরিদর্শনকালে জানাগেছে- বালাগঞ্জ-ওসমানী নগরের বিভিন্ন স্থানের জাত অনুযায়ী শুরু হওয়া ধান কাটা আগামী ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত চলবে। সব জাতের মিলে এবার ১৫হাজার ৯শ হেক্টর জমিতে আমন আবাদ হয়েছে। আবাদকৃত জমিতে ধান উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৬৭হাজার ৮৭ মেট্রিকটন।

বালাগঞ্জে লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৮হাজার হেক্টর। আবাদ হয়েছে ৭হাজার ৯শ হেক্টর। ওসমানীনগরে লক্ষ্যমাত্রা ছিল প্রায় সাড়ে ৮হাজার হেক্টর। আবাদ হয়েছে ৮হাজার হেক্টর।

এ ব্যাপারে আলাপকালে বড়জমাত গ্রামের শওকত আলী, মোঃ আনছার, শিওরখাল গ্রামের হাফিজ উস্তার আলী, সুলতানপুর গ্রামের তবদুল আলী, আসিদ আলীসহ বেশকয়েকজন কৃষক বলেন- আল্লাহর রহমতে এবার জমিতে ফলন বেশ ভাল হয়েছে। আশানুরুপ ফসল দেখে আমরা খুশি।

বালাগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মোঃ সুমন মিয়া বলেন- বিভিন্ন প্রতিকুল অবস্থার কারণে চলতি বছর আমন ধান আবাদের লক্ষ্যমাত্রা পুরোপুরি না হলেও প্রায় কাচাকাচি অর্জিত হয়েছে। বালাগঞ্জ- ওসমানীনগরে বর্তমান সরকারের সময় উপযুগী পদক্ষেপ ও কৃষকের পরিশ্রমের জন্য ফসলও বেশভাল হয়েছে। ইতিমধ্যে প্রায় ২০ভাগ ধান কাটা হয়েগেছে । আগামী সপ্তাহ থেকে পুরোদমে ধান কাটা শুরু হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন